বেলের শরবতের যত উপকারিতা

শেরপুর ট্রিবিউন | প্রকাশিত: ১১ এপ্রিল ২০২১ ১১:৪০; আপডেট: ১১ এপ্রিল ২০২১ ১২:২৭

ছবিঃ সংগৃহীত

এসেছে গরমকাল। গরমের এই মৌসুমে যে কটি ফল বাজারে বেশ সহজলভ্য তার মধ্যে বেল অন্যতম। অনেকে পাকা বেলের শরবত বেশ পছন্দ করেন, অনেকে আবার করে না। বেল কাজ করে ভেষজ ওষুধ হিসেবেও। তাই পছন্দ না হলেও নিয়মিত এক গ্লাস বেলের শরবত নিজের  স্বাস্থ্যের কথা ভেবে পান করা উচিত। চলুন জেনে নেই বেলের শরবতে কি কি উপকারিতা পাবেন ! 

বেলের ভিটামিন ‘সি’ দেহের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতাকে করে শক্তিশালী; বসন্ত ও গ্রীষ্মকালীন ছোঁয়াচে রোগগুলোর বিরুদ্ধে করে যুদ্ধ। বেলের বীজগুলো পিচ্ছিল ধরনের। এমন হওয়ার জন্য এই ফল পাকস্থলীতে (আমাদের শরীরের যেখানে খাবার জমা থাকে) উপকারী পরিবেশ তৈরি করে, খাবার সঠিকভাবে হজম হয়, পরিণামে দূর হয় কোষ্ঠকাঠিন্য।

দীর্ঘ বছরের কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে ক্ষতিকর নানা রকম অসুখ তৈরি হয়। বেল নিয়মিত খেলে এ সমস্যা দূর হয়।

আপনার আলসার যদি দীর্ঘ দিনের হয় পাকা বেলের শাঁসে সেই ফাইবার আছে যা আলসার উপশমে সাহায্য করে। সপ্তাহে তিন দিন বেলের শরবত করে খান আলসার কমাতে।

পাকা বেলে আছে মেথানল নামের একটি উপাদান যা ব্লাড সুগার কমাতে অনবদ্য কাজ দেয়। সাম্প্রতিক গবেষণায় এটি ধরা পড়েছে। তবে ভালো ফল পেতে পাকা বেল শরবত করে নয়, এমনিই খেতে হবে।

পাকা বেলে আছে অ্যান্টি মাইক্রোবায়াল উপাদান, যা যক্ষ্মা কমাতে সাহায্য করে। তবে ভালো ফল পেতে আপনাকে ব্রাউন সুগারের সঙ্গে বা মধু দিয়ে বেলের শরবৎ করে রাতে খেতে হবে ঘুমাতে যাওয়ার আগে। এটি টানা চল্লিশ খেলে উপকার পাবেন নিশ্চিত । 

আমাদের প্রায় অনেকেরই  আর্থ্রারাইটিস এর সমস্য থাকে এটা হল  গাঁটে গাঁটে ব্যথা, চলতে সমস্যা এই সবই এর লক্ষণ। ইদানীং ছেলে বুড়ো সবার মধ্যেই এই সমস্যা কম বেশী দেখা যায়  কিন্তু বেলে থাকা অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান এই ব্যথার হাত থেকে আমাদের মুক্তি দিতে পারে। নিয়ম করে তাই বেল খান।

এছাড়াও বেলে আছে  অ্যান্টি প্রলেফিরেটিভ ও অ্যান্টি মুটাজেন উপাদান। এই উপাদান টিউমার হতে দেয় না সহজে। আর যেহেতু এই ফলে হাই অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান আছে তাই এটা ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা কমিয়ে দেয়। 

আমাদের শরীরের প্রধান উপাদানই তো রক্ত । রক্তের মাধ্যমেই পুষ্টিগুণ সব অংশে পরিবাহিত হয়। তাই রক্তের শুদ্ধ থাকাটা খুব দরকার। বেল এই রক্ত শুদ্ধ করতে খুব ভালো কাজ দেয়। খানিকটা পাকা বেলের রসের সঙ্গে চিনি মিশিয়ে খেলে এটি রক্ত শুদ্ধ করে। ট্যান দূর করে। শুধু রক্ত নয়, কিডনি ও লিভারের কাজও ঠিক করে।

সুতরাং প্রিয় পাঠক , সুস্থ থাকতে হলে আপনার কোনভাবেই এই ফলটিকে এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয় , যেহেতু এটি মৌসুমী ফল সারাবছর পাবেন না  তাই মৌসুম থাকতে থাকতেই বেশী বেশী এর কার্যকরিতা গ্রহন করুন এবং নিয়মিত বেলের শরবত পান করুন । 





এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top