ফের ভিক্ষার থলে হাতে আলোচিত ভিক্ষুক নাজিম উদ্দীন।

শেরপুর ট্রিবিউন | প্রকাশিত: ৩০ জানুয়ারী ২০২১ ১২:৩৪; আপডেট: ২৯ জুলাই ২০২১ ১০:৪৫

ছবিঃ সংগৃহীত

ঝিনাইগাতী উপজেলার গান্ধীগাঁও গ্রামের ভিক্ষুক নাজিমউদ্দীন, সারাদেশে পরিচিতি পেয়েছিলেন দানবীর হিসেবে। করোনাকালীন সময়ে প্রধানমন্ত্রীর করোনা তহবিলে ভিক্ষা করে জমানো দশ হাজার টাকা দান করে আলোচনার ঝড় তুলেন, রাতারাতি ভাইরাল হয়ে সুপারস্টার বনে যান। আন্তর্জাতিক মহলেও প্রশংসার ঝড় উঠে। বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে আসে।

প্রধানমন্ত্রী খুশি হয়ে তার জন্য তৈরি করে দেন পাকা বাড়ি যা ইতোমধ্যে তিনি ব্যবহার করছেন। পরবর্তী জীবনে যেন তার আর ভিক্ষার থলে হাতে ঘুরতে না হয় সেজন্য জেলা প্রশাসন থেকে একটি দোকান ও বয়স্ক ভাতার বন্দোবস্ত করা হয়। ঝিনাইগাতী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে তার জন্য ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক কিনে দেয় যাতে খুব স্বাচ্ছন্দে তার বাকি জীবন পার করতে পারেন।

ভিক্ষুক নাজিমের দানশীল উদার মানবিকতা দেখে বিভিন্ন সরকারি - বেসরকারি সামাজিক সংগঠন ও এগিয়ে আসে নানাবিধ সহায়তা নিয়ে যাতে তাকে আর ভিক্ষার থলে হাতে মানুষের দ্বারে দ্বারে না ঘুরতে হয়।

কিন্তু এত সব সুবিধা পাওয়ার পরও ফের ভিক্ষার থলে হাতে গতকাল গজনী অবকাশে মানুষের কাছে ভিক্ষাবৃত্তি করছেন নাজিমউদ্দীন। তার এত সব সুবিধা পাওয়ার পরও ভিক্ষা করার কারণ জানতে চাইলে তিনি কোন সদোত্তর দিতে পারেননি। উৎসুক জনতার প্রশ্নের মুখে তিনি পালিয়ে যান। তার বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য তার এলাকায় যোগাযোগ করা হলে তার নামে পাওয়া যায় বেশ কিছু অভিযোগ। বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা সহ বিভিন্ন সরকারি অনুদান পাইয়ে দিবে বলে তিনি বহু মানুষর কাছ থেকে ঘুষ নিয়ে রেখেছেন। এ বিষয়ে তথ্য নেওয়ার জন্য যোগাযোগ করা হলে তার ফোন নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।





এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top