শেরপুরে শস্যচিত্রে জাতীয় পতাকা

শেরপুর ট্রিবিউন | প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২১ ১৬:০৫; আপডেট: ২৪ মে ২০২২ ১২:৫২

ছবি: শস্যচিত্রে জাতীয় পতাকা

পাখির চোখে সবুজের বুক চিরে দোল খাচ্ছে বেগুনি রঙের ধান। আর সেই ধানে অনেক উঁচু থেকে স্পষ্ট দেখা যায় বাংলাদেশের পতাকা। সবুজ ধানের ক্ষেতে বেগুনি রঙের ধান দিয়ে জাতীয় পতাকার আদলে ক্ষেত সাজিয়েছেন শেরপুরের ঝিনাইগাতি উপজেলার স্কুল শিক্ষক নূর ই আলম সিদ্দিকী।

নতুন জাতের এ ধানের নাম ‘পার্পল লিফ রাইস’। বেগুনি রঙের এ ধানের আবাদ করেছেন ওই স্কুল শিক্ষক। চলতি বোরো মৌসুমে নিজের ১০ শতাংশ জমিতে প্রথমবারের মতো এ ধানের আবাদ করেছেন তিনি।

পেশায় শিক্ষক হলেও নিত্যনতুন জাতের ধান আবাদ নিয়ে তাঁর আগ্রহ রয়েছে। অনলাইনে ভিডিও প্রকাশের মাধ্যম ইউটিউব থেকে তিনি পার্পল লিফ রাইস এবং এ জাতের ধানের আবাদ সম্পর্কে প্রথম জানতে পারেন। পরে অনেক চেষ্টা করে স্থানীয় এক ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর কৃষকের কাছ থেকে এ ধানের বীজ সংগ্রহ করেন। বীজতলা তৈরি করে চলতি বোরো মৌসুমে নিজের ১০ শতাংশ জমিতে তা রোপণ করেছেন তিনি।

তিনি জানান, তরুণ প্রজন্মের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ছড়িয়ে দিতে তার এমন উদ্যোগ। ইচ্ছে আছে এই মাধ্যমেই মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ফুটিয়ে তুলার।
ব্যতিক্রমি এ ধান ক্ষেত দেখতে প্রতিদিনই দূর দূরান্ত থেকে আসছেন অনেক দর্শনার্থী। নিজেদের এলাকায় প্রথমবারের মতো এমন ব্যতিক্রমি ধানক্ষেত দেখে খুশি এলাকার কৃষকরাও।

কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, কয়েক বছর আগে দেশে প্রথম বেগুনি রঙের ধানের আবাদ শুরু হয় গাইবান্ধায়। সৌন্দর্য ও পুষ্টিগুণে ভরপুর এ ধানের নাম পার্পল লিফ রাইস। এ ধানের গাছের পাতা ও কাণ্ডের রং বেগুনি। এর চালের রংও বেগুনি। তাই এটি রঙিন ধান হিসেবে পরিচিত।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ধানশাইল গ্রামের মাঠে সবুজ ধানক্ষেতের সমারোহ। সবগুলো ক্ষেতই চতুর্ভুজ আকৃতির। তার মাঝখানে নূর ই আলমের ধানক্ষেত। সব মিলিয়ে জাতীয় পতাকার আদলের মতো। পার্থক্য শুধু লালের জায়গায় বেগুনি বৃত্ত।





এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top