সালাম জানিয়ে ছাত্রলীগ নেতার উপর হামলার অভিনব প্রতিবাদ

শেরপুর ট্রিবিউন | প্রকাশিত: ২১ মে ২০২১ ১৭:২০; আপডেট: ১৭ জুন ২০২১ ০২:১১

ছবিঃ সংগৃহীত

শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের উপ-মানবসম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক সাব্বির আহমেদ বাদশার ওপর হামলার ঘটনায় সালাম জানিয়ে প্রতিবাদ করেছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ইতোমধ্যে এ ঘটনার ভিডিও ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

জানা গেছে, গত বুধবার (১৯ মে) দুপুরে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে মিটিং শেষে উপজেলা পরিষদের সিঁড়ি দিয়ে নামার সময় নালিতাবাড়ী পৌরসভার মেয়র আবু বকরকে দেখে সালাম দেন ছাত্রলীগ নেতা সাব্বির। সালাম দেওয়ার পরই মেয়রের কর্মীরা তাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি মারতে থাকেন। পরে মেয়র তার কর্মীদের ফিরিয়ে নিয়ে যান। এ সময় নালিতাবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান মোকসেদুর রহমান লেবু সাব্বিরকে উদ্ধার করেন।

ঘটনায় সাব্বিরের বাবা আব্দুল মতিন বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার (২০ মে) রাতে মেয়রের গাড়ির কাউন্টারের টিকিট মাস্টার আরিফ নামে এক যুবককে প্রধান করে ১১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ২০ জনকে আসামি করে নালিতাবাড়ী থানায় মামলা করেছেন।

এরপর জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে এ ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবি করে সালাম জানিয়ে ছবি পোস্ট করেন নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে সাব্বিরের বাবা আব্দুল মতিন বলেন, গত বুধবার মিটিং শেষ করে মেয়র আবু বক্কর তার কর্মীদের নিয়ে দোতলা থেকে নিচে নামার সময় আমার ছেলে সাব্বির মেয়রকে দেখেই সালাম দেন। সালামের জবাব না দিয়ে মেয়র তাকে ধমক দিয়ে বলেন- ‘এই বেয়াদব তুই এহেনে কি করিস।’ এটা বলে উনি যাওয়ার পরই তার অনুসারীরা সাব্বিরকে মারধর করেছেন। পরে নালিতাবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান লেবু সাহেব (উপজেলা চেয়ারম্যান) আমার ছেলেকে উদ্ধার করে নালিতাবাড়ী হাসপাতালে পাঠান। পরে আমি খবর পেয়ে হাসপাতালে গেলে ডাক্তাররা আমার ছেলেকে ময়মনসিংহে রেফার্ড করেন। আমি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচার চাই।

শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শোয়েব আহমেদ শাকিল শেরপুর ট্রিবিউন কে বলেন, সালাম দেওয়ার ঘটনায় আওয়ামী লীগের একজন মেয়রের সামনে একজন ছাত্রলীগ কর্মী ও জেলা ছাত্রলীগের একজন পদধারী নেতাকে মারধরের ঘটনা লজ্জাজনক। তাই আমাদের অনুরোধ সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত শাস্তির আওতায় আনা হোক।

নালিতাবাড়ী পৌরসভার মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, এ ঘটনার সঙ্গে আমি বা আমার কোনো কর্মী-সমর্থক জড়িত না। স্থানীয়ভাবে রাজনীতিতে আমাকে হেয় করার জন্যই এই প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বশির আহমেদ বাদল ঢাকা পোস্টকে বলেন, সাব্বিরের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলার তদন্ত চলছে। পাশাপাশি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।





এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top