ইউপি মেম্বারকে পথ আটকে পিটালো শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক

শেরপুর ট্রিবিউন | প্রকাশিত: ১৭ আগস্ট ২০২২ ০০:১৫; আপডেট: ১৭ আগস্ট ২০২২ ০০:২০

ছবি: শেরপুর ট্রিবিউন

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে উপজেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ইউপি মেম্বারকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। আহত ঐ মেম্বারের নাম মোঃ আবুল হাসেম। তিনি ১১নং বাঘবেড় ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হয়েছেন।

অভিযুক্ত আব্দুস সামাদ নালিতাবাড়ী পৌর শহরের বাসিন্দা এবং উপজেলা জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

জানা যায়, মঙ্গলবার (১৬ আগষ্ট) রাত সাড়ে ৮টার দিকে আবুল হাসেম মেম্বার নালিতাবাড়ী পৌর শহরের সাহাপাড়াস্থ এডভোকেট আসাদুজ্জামানের চেম্বার থেকে মোটর সাইকেল যোগে ফেরার পথে পুরাতন মা সিনেমা হলের সম্মুখে আসলে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে আগে থেকেই উৎপেতে থাকা আব্দুস সামাদ অজ্ঞাত ৮/১০ জনের সহযোগিতায় পথ আটকে বাইক থেকে নামিয়ে হাতুড়ি দিয়ে বেধরক ভাবে মারধোর করে। হাতুড়ির আঘাতে তার পিঠে ও পায়ে মারাত্বকভাবে জখম হয়। একপর্যায়ে হাসেম মেম্বার অজ্ঞান হয়ে পরলে সামাদ সহ অন্যান্যরা পালিয়ে যায়।

পরে আহত মেম্বারকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত আবুল হাসেম জানান, পরিকল্পিতভাবে পূর্ব শত্রুতার জেরে সামাদ আমাকে মারধোর করেছে এবং আশা সমিতি থেকে কৃষি ব্যাংকের মাধ্যমে আজই উত্তোলন করা ২লক্ষ ৪০ হাজার টাকা ও ১টি মোবাইল সেট ছিনিয়ে নিয়েছে।

বাঘবেড় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুস সবুর জানান, একজন জনপ্রতিনিধিকে এভাবে মারধোর করা বিরাট অন্যায়৷ দ্রুত সময়ের মধ্যে দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানান তিনি।

ইউপি মেম্বার এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শাহীন সাফওয়ান বলেন, একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিকে মারধোর করা কোনভাবেই মেনে নেওয়া যায়না। আমরা ইতোমধ্যেই নালিতাবাড়ী থানাকে কঠোর ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছি। বুধবার জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর স্মারক লিপি দেবো এবং দুপুর বারোটায় আমরা মেম্বার এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ অবস্থা পর্যালোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবো।

নালিতাবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল লতিফ জানান, ঘটনা শুনেছি। এখনো লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলেই আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।





এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top