নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

সরকারি হাসপাতালে নেই জলাতঙ্ক ভ্যাক্সিন

মো: হারুন অর রশিদ | প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০২২ ১৬:১১; আপডেট: ৭ অক্টোবর ২০২২ ১৬:৫৫

ছবি: শেরপুর ট্রিবিউন

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সরবরাহ নেই জলাতঙ্কের প্রতিষেধক ভ্যাকসিন। ফলে কুকুর বা বিড়ালে কামড়ালে সেবা পাচ্ছেন না রোগীরা। এতে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে বাইরে থেকে কিনতে হচ্ছে ভ্যাকসিন।

এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১২টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার প্রায় আড়াই লাখ মানুষ চিকিৎসা নিতে আসেন। হাসপাতালে সাপে কাটা ভ্যাকসিন সরবরাহ থাকলেও কুকুরে কামড়ালে প্রতিষেধক ভ্যাকসিন না থাকায় সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন রোগীরা।

জানা যায়, কুকুড়ে বা বিড়ালে কামড়ালে রোগীদের হাসপাতালে নিলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর কর্মরত চিকিৎসকরা হাসপাতালে কুকুড়ে কামড়ানো ভ্যাকসিন সরবাহ নেই বলে জানিয়ে দেন। পরে বাহির থেকে অতিরিক্ত মূল্যে ভ্যাকসিন কিনতে হচ্ছে নয়তো জেলা সদরে গিয়ে ভ্যাকসিন নিতে হচ্ছে। এতে করে অনেক ভোগান্তির স্বীকার হতে হয়। উপজেলার একমাত্র সরকারি হাসপাতালে ভ্যাকসিন না পাওয়া দুঃখ প্রকাশ করেছে ভুক্তভোগীরা।

উপজেলার ছালুয়াতলা গ্রামের ভুক্তভোগী এমদাদুল হক জানান, আমার দেড় বছর বয়সী নাতিকে বিড়ালে কামড়ালে আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগাযোগ করি। তারা জলাতঙ্কের ভ্যাকসিন নেই বলে জানিয়ে দেয়। পরে আমাকে অতিরিক্ত টাকা খরচ করে বাহিরের ফার্মেসি থেকে ভ্যাকসিন কিনতে হয়েছে। হাসপাতালে সরবরাহ থাকলে আমার টাকাগুলো বাড়তি খরচ হতো না।

এ বাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌফিকুল  ইসলাম শেরপুর ট্রিবিউনকে জানান, কুকুড়ে কামড়ানো ভ্যাকসিন হাসপাতালে সরবরাহ নেই। রোগীরা বাহিরের ফার্সিসী থেকে কিনছেন। তবে সাপে কামড়ানো ভ্যাকসিন সরবরাহ রয়েছে।





এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top