পাঁচ হাজার টাকায় স্ত্রী বিক্রি

মো: হারুন অর রশিদ | প্রকাশিত: ২৪ জুন ২০২৩ ০৬:৩৮; আপডেট: ১৭ জুলাই ২০২৪ ১৫:২৩

ছবিঃ শেরপুর ট্রিবিউন

আশি বছরের বৃদ্ধ কৃষক সুরুজ্জামান। স্ত্রী মারা যাওয়ার পর নিঃসঙ্গ জীবন যাপন করছিলেন। সন্তানেরা বিয়ে করে আলাদা সংসার করায় দেখাশোনা ও সংসারের কাজ করার মতো কেউ ছিলোনা তার। ফলে বয়সের ভাড়ে নুয়েপড়া সুরুজ্জামান পাত্রীর খোঁজ করছিলেন দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য।

অন্যদিকে একই এলাকার প্রতিবন্ধী আওয়াল তার স্ত্রীকে নিয়ে গ্রামে গ্রামে ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসার চালান। একদিন হঠাৎ করেই তার কথা হয় পাত্রী খোঁজতে থাকা বৃদ্ধ সুরুজ্জামানের সাথে। সাথে সাথেই নিজের স্ত্রীকে পাঁচ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন আওয়াল। কথামতো স্ত্রীকে নিয়ে বৃদ্ধের বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছেও দেন।

পাঁচ হাজার টাকায় বউ কিনেছেন সুরুজ্জামান- এমন খবর শোনে আশপাশের উৎসুক মানুষ তার বাড়িতে ভিড় জমায়। গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে এক লাখ টাকা দেনমোহর বেধে নব্বই হাজার টাকা পরিশোধ দেখিয়ে মরিয়ম খাতুন নামে আওয়ালের যুবতী স্ত্রীকে বিয়ে করেন বৃদ্ধ সুরুজ্জামান। এর আগে একই বৈঠকে আওয়াল পাঁচ হাজার টাকা বুঝে পেয়ে স্ত্রী মরিয়মকে তালাক দেন।

পাঁচ হাজার টাকায় নিজের স্ত্রীকে অন্যের স্ত্রী হিসেবে তুলে দেওয়ার ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। শোনতে অবাক করার মতো হলেও বাস্তবে এমন ঘটনাই ঘটেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার গেরামারা গ্রামে। চলতি মাসের প্রথমদিকে এমন অভিনব বিয়ের এ ঘটনাটি ঘটে।

এর আগে বিক্রি হওয়া ওই যুবতীর আরও একটি বিয়ে হয়েছিল জনৈক করিম নামে এক যুবকের সাথে। কিছুদিন সংসার করার পর গার্মেন্টসকর্মী যুবতীকে ভাগিয়ে বিয়ে করেছিলেন সদ্য স্ত্রী বিক্রেতা স্বামী আওয়াল। তিন বছর সংসার করার পর আওয়াল মাত্র পাঁচ হাজার টাকায় হাত বদল করে এবার স্ত্রীকে তুলে দেন সুরুজ্জামানের হাতে। এমন স্বীকারোক্তি অবলীলায় দিচ্ছেন বিক্রি হওয়া যুবতী মরিয়ম।

এদিকে বৃদ্ধ বয়সে যুবতী স্ত্রী পেয়ে বেজায় খুশী বৃদ্ধ সুরুজ্জামান। রান্না বান্না থেকে শুরু করে গৃহস্থালীর কাজ, এমনকি সেবা পেতে শেষ বয়সে এসে এমন একজন জীবন সঙ্গী পেয়ে জীবনে যেন নতুন করে গতি ফিরে পেয়েছেন তিনি। তবে এ বিষয়ে খুব একটা প্রতিক্রিয়া জানাতে আগ্রহী নন তিনি।

দুই বিয়ের মাঝখানে তিন মাস ইদ্দত পালন ছাড়া একই বৈঠকে আগের বিয়ের তালাক এবং পরবর্তী আরেক বিয়ের বৈধতা দেয়নি ইসলাম। বৈধতা দেয়নি টাকার বিনিময়ে স্ত্রী বেচাকেনারও। অবশ্য টাকার বিনিময়ে বিয়ের কথা অস্বীকার করে ঐ টাকাজে ঘটকের হাদিয়া হিসেবে দাবী করেন সংশ্লিষ্টরা।





এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top