শেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে প্রথমবারের মত তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী নিশি।

এ. কে. এম. নাজমুল হক ও সোহাগী আক্তার | প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০২০ ২৩:৪৪; আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০২০ ১০:২৭

নিশি সরকার।
শেরপুরে প্রথমবারের মতো এই ৩য় লিঙ্গের হয়ে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন নিশি সরকার। ২৫ বছর বয়সের নিশি আক্তার লড়ছেন সংরক্ষিত নারী আসনে। তার নির্বাচনী এলাকা পৌর শহরের ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ড। নিশি শেরপুর জেলা হিজরাকল্যাণ সংস্থার সভাপতি। পড়াশোনা করছেন শেরপুর সরকারি কলেজের সম্মান ২য় বর্ষের ব্যবস্থাপনা বিভাগে। স্থানীয় মানুষের কাছে রয়েছে তার বেশ পরিচিতি। জন্ম শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার আহম্মদনগরে হলেও জীবনের বেশিরভাগ সময় কেটেছে তৃতীয় লিঙ্গের সদস্যদের সাথে।
 
সাধারণ মানুষ তাকে কতটা চায়- এই প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, "সেটি প্রমাণিত হবে নির্বাচনে ভোটের মাধ্যমে। কারণ আমি আমার নিজের পিছিয়ে পড়া তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীসহ সবসময় গরীব ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছি"।
 
বাংলাদেশের সমাজ ব্যবস্থায় যেখানে হিজরাদের নানান লাঞ্ছনা- বঞ্চনার ও অবজ্ঞার চোখে দেখা হয় সেখানে নির্বাচনী প্রচারণায় এলাকার মানুষ তাকে কিভাবে দেখছে এই প্রশ্নের জবাবে নিশি বলেন, "মানুষ সহযোগিতা করছে, সবাই আমাকে ভালোবাসছে। আর সাথে রয়েছে স্থানীয় এলাকাবাসীর সমর্থন"।
 
তার জীবন সংগ্রাম নিয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, ছোটবেলা থেকেই নানান কুটক্তি ও লাঞ্চনার স্বীকার হয়েছে। অবহেলিত এই জনগোষ্ঠীকে সমাজের মূল ধারায় ফিরিয়ে আনতে প্রয়োজন পর্যাপ্ত কাজের সুযোগ। কাজের সুযোগ পেলে এই জনগোষ্ঠীও যে অসাধারণ দক্ষতার প্রমাণ দিতে পারে তা বাস্তবায়ন হবে। নির্বাচিত হলে ৩য় লিঙ্গের এই জনগোষ্ঠীকে কর্মসংস্থানের সুযোগ দিয়ে স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ায় অবদান রাখতে চান তিনি। আর সেই সাথে পৌরসভাকে একটি মডেল পৌরসভায় রুপান্তর করতে সর্বদা কাজ করে যাবেন। একটি পরিচ্ছন্ন নগরী, উন্নত ড্রেনেজ ব্যবস্থার পাশাপাশি প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সেবায় নিয়োজিত থাকবেন।
 
শেরপুরের মানুষের প্রতি তার আহ্বান, "নির্বাচনে সহযোগিতা করে মানুষ হিসেবে আমাদেরও যে সক্ষমতা আছে তা প্রমাণ করার সুযোগ দিবেন"। নাগরিক প্লাটফর্ম জনউদ্যোগ এর আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, "মর্যাদাবঞ্চিতদের মধ্যে ৩য় লিঙ্গের মানুষরা অন্যতম। পিছিয়ে পড়াদের মধ্যে সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া এরা। পরিবারহারা, সমাজহারা, অধিকারহারা তবুও তারা বেঁচে থাকে সংগ্রাম করে, নিশি তাদেরই প্রতিনিধিত্ব করে তাদের দাবী আদায়ে সবসময়ই সচেষ্ট ছিল, সাধারণ মানুষ যদি তাকে সেবা করার সুযোগ দেয়, সে নিশ্চয়ই কাজের মাধ্যমে তার যোগ্যতার প্রমান দিবে"।


বিষয়:



এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top